মঙ্গলবার ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাটকীয় জয়ে সিরিজে টিকে থাকল কিউইরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩ | প্রিন্ট

নাটকীয় জয়ে সিরিজে টিকে থাকল কিউইরা

ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চার ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টি-২০তে মুখোমুখি হয়েছিল পাকিস্তান। এ ম্যাচে স্বাগতিকদের ৪ রানে হারিয়েছে কিউইরা। অবশ্য চলমান সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বাবর আজমের দল।

সোমবার লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে পাকিস্তান। এ ম্যাচে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬৩ রান করে সফরকারীরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৫৯ রানে গুটিয়ে যায় দ্য গ্রিন ম্যানরা।

এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড। আগের দুই ম্যাচের মতো এবারো ধীরগতির শুরুই করেছিল সফরকারী দলটি। তবে শেষ পর্যন্ত দেড়শ রান পার করাতে বড় অবদান রাখেন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। এছাড়া ড্যারিল মিচেলের ব্যাট থেকে আসে ২৬ বলে ৩৩ রান।

নিউজিল্যান্ডের মাত্র ২০ রানেই ওপেনার চাঁদ বোয়েসকে বোল্ড করে দেন শাহিন আফ্রিদি। এরপর উইল ইয়ং আউট হন ৫৬ রানে। শাদাব খানের বলে আউট হওয়ার আগে তিনি ১৭ রান করেন। তাদের রানের চাকা তখনও ধীরগতিতে আগাচ্ছিল।

এরপর ল্যাথামের সঙ্গে মিচেলের জুটিতে কিছুটা গতি পায় কিউইদের ইনিংস। এরপর কয়েক রানের ব্যবধানে দুজনই ফিরে যান। তাদের জুটিতে আসে ৬৫ রান।

শেষ দিকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়লেও আগের দুই ম্যাচে রান পাওয়া মার্ক চ্যাপম্যানের ৯ বলে ১৬ এবং নিশামের ৬ বলে ১০ রানের সুবাদে রান দেড়শ’র কোঠা পেরোয়।

পাকিস্তানের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন শাহিন আফ্রিদি ও হারিস রউফ।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানকে ১৭ রানের মধ্যে হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান। বাবর ৬ বলে ১ আর রিজওয়ান ১০ বলে ৬ রান করেন। মিডল অর্ডার ব্যাটাররাও হাল ধরতে না পারলে ৮৮ রানে পড়ে যায় ৭ উইকেট। যেখান থেকে ইফতিখার-ঝড়ে জয়ের সম্ভাবনা জেগে ওঠা, শেষ ওভারে ঝড় থেমে যাওয়ার পর আসে হারও।

ইফতিখার যখন ক্রিজে আসেন তখনও পাকিস্তানের ৩৫ বলে দরকার ৭৬ রান। সেখান থেকে ফাহিম আশরাফকে সঙ্গে নিয়ে জয় নাগালে নিয়ে আসেন ইফতিখার। ভালো সঙ্গ দেন ফাহিমও। ২ ছক্কা ২ চারে ১৪ বলে ২৭ রান করে ফাহিম আউট হন উনিশতম ওভারে। ম্যাট হেনরির করা ওভারের শেষ তিন বলে নাসিম শাহ এক রানও নিতে পারেননি।

শেষ ওভারে ইফতিখারের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৫ রানের। প্রথম বলে ৬ আর তৃতীয় বলে চার মেরে লক্ষ্যটা তিনি প্রায় মুঠোয় নিয়ে আসেন। কিন্তু চতুর্থ বলে আর সীমানা পার করতে পারেননি। লং অনে ড্যারিল মিচেলের ক্যাচে থেমে যায় তার ২৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস। যে ইনিংসের পথে ছিল ৬টি ছয় আর তিনটি চার। এর মাধ্যমে ইফতিখার পাকিস্তানের হয়ে দ্বিতীয় দ্রুততম ২০ বলে ফিফটির রেকর্ড গড়েন।

ইফতিখারের আউটের পরও জয়ের সুযোগ ছিল পাকিস্তানের। কিন্তু নিশামের পঞ্চম বলে ব্যাটই লাগাতে পারেননি রউফ। শেষ বলটি তুলে মারলেও ক্যাচ হন মিড উইকেটে। ১৫ রানের বিপরীতে তারা তুলতে পারেন ১০ রান।

কিউইদের হয়ে তিনটি উইকেট নেন নিশাম। এছাড়া দুটি করে উইকেট নিয়েছেন অ্যাডাম মিলনে ও রাচিন রবীন্দ্র।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৩:৫০ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]