শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বৃষ্টিতে রাজশাহীর আম চাষিদের স্বস্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩ | প্রিন্ট

দীর্ঘ খরা আর তীব্র তাপদাহের পর রাজশাহীতে স্বস্তির বৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সেখানে ৩৫ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। এতে স্বস্তি ফিরেছে মানুষ, পশুপাখি, গাছপালা ও প্রকৃতির মাঝে। সবচেয়ে বেশি উপকৃত হয়েছেন আম চাষিরা।

কৃষি বিভাগ ও আম চাষিরা জানান, রমজান মাসজুড়েই ছিল তীব্র খরা। সর্বশেষ ৩ এপ্রিল বৃষ্টিপাত হয়। এর পরই তাপমাত্রা বাড়তে থাকে। রাজশাহী অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যায় তীব্র তাপদাহ। ১৭ এপ্রিল মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় মাটির রস শুকিয়ে যায়। পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় চাষিদের সেচ দেওয়ার চেষ্টাও ব্যর্থ হয়। ফলে বাগানের অর্ধেক আমই শুকিয়ে ঝরে যেতে থাকে।

রাজশাহীর পুঠিয়ার আম চাষি সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমের বড় উপকার করল বৃষ্টি। এখন আর ঝরবে না। দ্রুত বড় হবে আম। আম চাষিদের বাঁচিয়ে দিল এ বৃষ্টি। আমি নিয়ত করেছিলামু বৃষ্টি হলে খাগড়াই কিনে মসজিদে মিলাদ দেব। মঙ্গলবারই মিলাদ দিয়েছি।’

বিনোদপুরের আম চাষি বেলাল উদ্দীন বলেন, ‘গাছের গোড়ায় সেচ দিয়েও খরা থেকে আম রক্ষা হচ্ছিল না। বৃষ্টিপাত হওয়ায় এখন আর আম ঝরবে না। খুবই উপকার হলো।’তবে বাঘার আম চাষি শফিকুল ইসলাম ছানা বলেন, ‘সোমবার বাঘা ছাড়া রাজশাহীর অন্য এলাকাগুলোতে বৃষ্টিপাত হয়েছে। ফলে বাঘার আম ঝরা বন্ধ হয়নি। বৃষ্টির অভাবে নলকূপেও পানি উঠছে না। সেচের অভাবে মাটির রস শুকিয়ে গেছে। আম ঝরে যাচ্ছে। যেগুলো টিকে থাকবে, সেগুলোও খুব বড় হবে না।’

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোজদার হোসেন বলেন, ‘জেলার অধিকাংশ এলাকাতেই বৃষ্টি হয়েছে। কিছু এলাকায় ব্যতিক্রম ছিল, বৃষ্টি হয়নি। যেসব এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে, সেসব এলাকার আম ঝরবে না। ধুলাবালি ধুয়ে যাওয়ায় গাছ বেশি খাবার সংগ্রহ করতে পারবে। এতে আমের সাইজ বড় হবে। রোগবালাই কম হবে। যেখানে বৃষ্টি হয়নি, সেখানে সেচ দিতে হবে।’ তিনি জানান, গুটি আম ১৫ মের দিকে পাকতে শুরু করবে। গোপাল ভোগ আম মে মাসের শেষের দিকে উঠবে।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক আব্দুস সালাম জানান, সোমবার সন্ধ্যা ৫টা ৫০ মিনিট থেকে রাত ৮টা ৫২ মিনিট পর্যন্ত ৩৫ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। বৃষ্টিপাতের ফলে তাপদাহ কমেছে। মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:১৯ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]