মঙ্গলবার ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজমত উল্লা খানের ২৮ দফা ইশতেহার ঘোষণা

অমল ঘোষ:   |   রবিবার, ২১ মে ২০২৩ | প্রিন্ট

আজমত উল্লা খানের ২৮ দফা ইশতেহার ঘোষণা

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লা খান ২৮ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।
রোববার সকাল ১১টায় মহানগরের প্রকৌশল ভবনের হলরুম তিনি এ নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।

এ সময় মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলিমুদ্দিন বুদ্ধিন, সাধারণ সম্পাদক আতাউল্ল্যাহ মন্ডল, অ্যাডভোকেট ওয়াজ উদ্দিন মিয়া, আব্দুল হাদী শামীম, আফজাল সরকার রিপন, মজিবুর রহমান, কাজী ইলিয়াস, মাসুদ রানা এরশাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লা খান তার ইশতেহারে বলেন, নির্বাচিত হলে জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ বা সেবাকে গুরুত্ব দেওয়া হবে। এ নির্বাচন আমাদের সবার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর ওপর নির্ভর করছে আমাদের ভবিষ্যত নগর জীবন। যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে যথাযথ সেবা পেতে হলে সে প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে সৎ, যোগ্য ও অভিজ্ঞ নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করা অনিবার্য। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত নেতৃত্বের অদক্ষতা, অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে আমরা তা থেকে বঞ্চিত হয়েছি।

তিনি আরো বলেন, ২০১৩ সালে যাত্রা শুরু হওয়ার পর থেকে বর্তমান সরকার গাজীপুর সিটির উন্নয়নে বহু সহায়তা প্রদান করেছে। কিন্তু সঠিক পরিকল্পনা, সততা ও স্বচ্ছতার অভাবে সরকারি বরাদ্দকৃত অর্থের অনেকাংশ ব্যয় না হওয়ায় শহরের সমস্যাগুলোর সমাধান করা সম্ভব হয়নি। এ নগরে অনেক সমস্যা বিদ্যমান রয়েছে, যা সমাধানে প্রয়োজন সৎ ও যোগ্য প্রতিনিধি; যিনি জনগণকে সম্পৃক্ত করে সরকারের বিভিন্ন দফতর ও অধিদফতরের মধ্যে সমন্বয়ের মাধ্যমে নাগরিকদের এসব সমস্যার সমাধান করবেন।

জনগণের উদ্দেশ্যে আজমত উল্লা খান বলেন, আপনারা জানেন, ১৯৯৫ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত টঙ্গী পৌরসভার চেয়ারম্যান ও মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। সে সময় টঙ্গী পৌর এলাকার অভূতপূর্ব উন্নয়নের পরিপ্রেক্ষিতে আমি চারবার বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান/মেয়র হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছি ও টঙ্গী পৌরসভা চারবার শ্রেষ্ঠ পৌরসভার স্বীকৃতি লাভ করেছে।

তিনি বলেন, অভিজ্ঞ নগরবিদ ও প্রকৌশলীদের সমন্বয়ে বিশ্বমানের একটি মাস্টারপ্ল্যান তৈরি করে জনগণের সেবা নিশ্চিত করা হবে। হোল্ডিং ট্যাক্স, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদসহ বিভিন্ন সনদের ফি, ইউটিলিটি বিল ইত্যাদি অনলাইন এর মাধ্যমে পরিশোধের ব্যবস্থা এবং ওয়ার্ডগুলোকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা ও ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন করার উদ্যোগ নেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, হোল্ডিং করের হার না বাড়িয়ে রিভিউ বোর্ডের মাধ্যমে সহনশীল পর্যায়ে চূড়ান্ত করা হবে। সিটির পক্ষ থেকে সব নাগরিকের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা হবে। বিশেষ করে স্বল্পমূল্যে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস সেবা, দুস্থ ও অসহায় মানুষের মৃত্যুর পর প্রয়োজন অনুযায়ী কাফনের কাপড়ের ব্যবস্থা করা এবং সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক, ফার্মাসিউটিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে শ্রমিক, বস্তিবাসী ও দরিদ্র মানুষের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্য কার্ড/লাল কার্ড প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আজমত উল্লা খান বলেন, পানি ও পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নে সরকারি ও বেসরকারি সেবাদানকারী স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহায়তা প্রতিষ্ঠানসমূহের সঙ্গে সমন্বয় করে নাগরিকদের সুপেয় পানির প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা হবে।

যানজট নিরসন, পার্কিং, ফুটপাতসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার আধুনিকীকরণ করা হবে।

তিনি শিক্ষার মান উন্নয়নে প্রয়োজনে জিসিসির অধীনে কারিগরি ও অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলাসহ নগরীতে অবস্থিত স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও এতিমখানাসমূহে সাহায্য প্রদান করবেন।

এছাড়াও অনাথ, গরিব, যোগ্যতাসম্পন্ন মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান, সিটির নিজস্ব পাঠাগারের আধুনিকীকরণ, নতুন পাঠাগার প্রতিষ্ঠা এবং ব্যক্তি ও বেসরকারি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত পাঠাগার সমূহকে সহয়তা প্রদানের উল্লেখ করেন এই ইশতেহারে।

তিনি নির্বাচিত হলে শ্রমিক-কর্মচারী ও বস্তিবাসীদের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতকরণ করবেন। তরুণদের বিভিন্ন দক্ষতা বৃদ্ধি ও উন্নত ভবিষ্যত বিনির্মাণ এবং বয়স্ক ও শিশুদের মিলনস্থল ও বিনোদনকেন্দ্র হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডে ‘ওয়ার্ড সেন্টার’ নির্মাণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করাসহ কমিউনিটি সেন্টার, সেবাদান কেন্দ্র, আত্মরক্ষা ও বিভিন্ন রকম প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবেন।

তিনি নির্বাচিত হলে বর্জ্য ব্যবস্থার আধুনিকীকরণসহ বর্জ্য পরিশোধনকেন্দ্র স্থাপন এবং বর্জ্যকে জ্বালানি শক্তিতে রূপান্তরিত করার পদক্ষেপ নিতে উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের প্রসারের বিভিন্ন উদ্যোগসহ ক্রীড়া, পার্ক ও উদ্যান নির্মাণ, ঈদগাহ, কবরস্থান ও শ্মশানের উন্নয়ন এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সহায়তা, প্রতিটি ওয়ার্ডে ঈদগাহ ও কবরস্থান নির্মাণ এবং শ্মশানগুলোর উন্নয়ন ও নির্মাণ করবেন।

তিনি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনকে সমৃদ্ধ সুষম নগরী হিসেবে গড়ে তোলার স্বার্থে নৌকা মার্কায় সবার সমর্থন, দোয়া ও ভোট প্রার্থনা করেন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:১২ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ২১ মে ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]