বুধবার ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জবি’র মসজিদ থেকে এক জুতা চোর আটক

রাশেদ হোসেন রনি, জবি প্রতিনিধি :   |   সোমবার, ১২ জুন ২০২৩ | প্রিন্ট

জবি’র মসজিদ থেকে এক জুতা চোর আটক

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে কিছুদিন পরপরই ঘটে জুতা চুরির ঘটনা। আজ বাদ যোহর কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে আটক করা হয় এক চোরকে। কয়েকদিন ধরে পর্যবেক্ষণের পর আজ এই চোরকে সনাক্ত করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী।

ধরা পরা এই চোরের নাম রুবেল। তার বাড়ি খুলনা হলেও সে ছোটবেলা থেকে ঢাকায় বসবাস করে। তাছাড়া সে ঢাকার একটি ওয়ার্কশপে কাজ করে বলে জানায়। তবে এসব তথ্য সত্য কিনা সে বিষয়ে রয়েছে যথেষ্ট সন্দেহ। সে প্রথমবার সদরঘাটের একটি ওয়ার্কশপে কাজ করার কথা জানালেও পরে জানায় একটি ফার্নিচার শপে সে কাজ করে। আবার জবি’তে তার পরিচিত ব্যক্তি আছে বলে জানালে শিক্ষার্থীরা চোরকে বলে যেনো সেই পরিচিত ব্যক্তিকে কল দিয়ে এখানে আসতে বলে। কিন্তু সে যাকে কল দেয় সেই ব্যক্তি ছিল ঢাকার উত্তরায় বসবাস করা এক মহিলা যে রুবেল নামে এই ব্যক্তিকে চেনেই না।

এবিষয়ে জবি’র বাংলা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সোহেল সরকার জানায়, “আমি এই লোকটিকে বেশ কয়েকদিন আমি সন্দেহ করে আসছিলাম। প্রথম একদিন তাকে আমি দেখেছি সে নামাজের সময় জুতা এক বক্স থেকে অন্য বক্সে নিয়ে রাখে। দ্বিতীয় দিন আবারো তাকে এই কাজ করতে দেখে আমি তাকে ডাকি, কিন্তু সে আমার কথা মতো না দাড়িয়ে পোগোজ স্কুলের ভেতর দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে চলে যায়। সে ঘটনার পর অনেকদিন তাকে মসজিদে দেখা না গেলেও আজ তাকে আবার মসজিদে দেখতে পেয়ে আমি আরো কয়েকজন বড়ো ভাইকে বিষয়টি জানাই। তাদের নিয়ে পর্যবেক্ষণ করে আজ চোরটি আমরা ধরতে সক্ষম হয়েছি।” সোহেল আরো জানায়, “এই চোরদের একটি চক্র মসজিদের আশেপাশে ঘুরে বেড়ায়। তাদের কেউ কেউ জুতা বক্স থেকে সরিয়ে অন্যত্র রাখে এবং চক্রের অন্য সদস্যরা সেখান থেকে জুতা নিয়ে মসজিদ থেকে বের হয়ে যায়।”

মসজিদে নামাজ পড়তে আসা বাংলা বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী রাশেদ রনি জানায়, “আমি যোহরের নামাজ পড়তে এসে দোতলায় বক্সের মধ্যে জুতা রেখে নামাজে দাড়াই। কিন্তু নামাজ শেষে এসে দেখি আমার জুতা সেই বক্সে নেই। জুতা খুঁজতে মসজিদের নিচতলায় এসে দেখি সিঁড়ির এক কর্ণারে আমার জুতা রাখা আছে। আমরা ধারণা মতে, এই চোর চক্রের পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী তাদেরই কেউ একজন আমার জুতাগুলো নিচতলায় রেখেছে। যদি আজকে এই চোরটি ধরা না পরতো তাহলে হয়তো আমার জুতা এই চক্রের মাধ্যমে চুরি হতো।”

পরবর্তীতে এই চোরকে জবি’র প্রক্টর অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে জবি’র পুলিশ বক্সের ইনচার্জের কাছে তুলে দেওয়া হয়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:২৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১২ জুন ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]