বুধবার ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভর্তি পরীক্ষা ঘিরে ফাঁদ- ‘পড়লেই চান্স’

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০২৩ | প্রিন্ট

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ঘিরে ক্যাম্পাসে চলছে বিভিন্ন কোচিংয়ের ফটোকপি করা মানহীন শিট ও বইয়ের রমরমা ব্যবসা।

গত রোববার (১৮ জুন) শুরু হওয়া এ ভর্তি পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পয়েন্টে এসব শিট ও বই বিক্রি করতে দেখা গেছে।

‘শিট পড়লেই শতভাগ চান্স নিশ্চিত’ বিক্রেতাদের এমন চটকদার বিজ্ঞাপনের ফাঁদে পড়ে এসব শিট-বই কিনছেন অসংখ্য পরীক্ষার্থীরা।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে বলা হচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে এ ধরনের কোনো ব্যবসার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত পরীক্ষার্থীদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে এসব মানহীন শিট-বই বিক্রি করছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।

পরীক্ষার্থীদের অনেকেই জানিয়েছেন, এসব মানহীন শিট এক ধরনের ধোঁকাবাজি। পরীক্ষায় কোনো ধরনের প্রশ্ন কমন পাওয়া যায় না। এসব বিক্রি করে তারা আমাদের থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক (ডেইরি গেট), সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে ও স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে ১০ থেকে ১২টি রং-বেরঙের শিটের দোকান দিয়েছেন কোচিং সংশ্লিষ্টরা। ৮-১০ পৃষ্ঠার এসব শিট বিক্রির জন্য তারা পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে নিচ্ছেন ৭০ থেকে ৯০ টাকা পর্যন্ত।

চুয়াডাঙ্গা জেলা থেকে আসা পরীক্ষার্থী ইকরাম হোসেন জানান, ‘বিক্রেতাদের কথার ফাঁদে পড়ে ‘সি’ ইউনিটের পরীক্ষার আগে ৮০ টাকা দিয়ে একটি শিট কিনেছিলাম। কিন্তু, পরীক্ষায় কোনো প্রশ্ন কমন পাইনি। এই শিট আসলে পুরোপুরি আমাদের পকেট কেটে ব্যবসার উদ্দেশ্যে, এতে কোনো উপকার নেই।’

কোচিং সেন্টারের এসব মানহীন শিট-বই বিক্রি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, প্রতি বছর ভর্তি পরীক্ষার মৌসুমে পরীক্ষার্থীদের টার্গেট করে এসব শিট বিক্রি করছে একশ্রেণির লোক। ভর্তি পরীক্ষায় এসব শিট থেকে কোনো প্রশ্ন কমন আসবে না জেনেও তারা চটকদার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে চড়া মূল্যে এগুলো বিক্রি করছেন। ভর্তি পরীক্ষাকে ঘিরে এসব ব্যবসা দ্রুত বন্ধ করার দাবি তাদের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, শুরু থেকেই আমরা এসব ব্যবসার ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত করেছি। গতকালও আমরা দোকানপাট তুলে দিয়েছি। আজকে পুনরায় তারা আবারো শিট ব্যবসা শুরু করেছে। নাম-পরিচয় জানতে পারলে আমরা দ্রুত তাদের উচ্ছেদ করব।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]