মঙ্গলবার ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলে হামাসের হামলা: এরপর কী হতে পারে

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   সোমবার, ০৯ অক্টোবর ২০২৩ | প্রিন্ট

ইসরায়েলে হামাসের হামলা: এরপর কী হতে পারে

পঞ্চাশ বছর আগে ইসরায়েলের ওপর আকস্মিক হামলা চালিয়েছিল মিসর ও সিরিয়া, যা ইওম কিপুর যুদ্ধ নামে পরিচিতি পায়। শনিবার একই উপায়ে ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরায়েলের ওপর বড় ধরনের আক্রমণ শুরু করেছে। যাতে সে পরিস্থিতির পুনরাবৃত্তি হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

শনিবার হামাসের হামলাটিও ছিল আকস্মিক ও অপ্রত্যাশিত। দিনটিও ছিল ইহুদিদের ছুটির দিন। ওই হামলার পর ইসরায়েলও গাজায় বিমান হামলা চালিয়েছে। স্থল অভিযানেরও পরিকল্পনা করছে তারা।কিছুদিন ধরেই গাজা উপত্যকায় উত্তেজনা বাড়তে দেখা গেছে। তবে ভাবা হচ্ছিল, গাজার শাসনে থাকা হামাস কিংবা ইসরায়েল কেউই চায় না উত্তেজনা আরও বাড়ুক। সে ধারণা মিথ্যা প্রমাণ করে হঠাৎ ইসরায়েল অভিমুখে বড় ধরনের অভিযান শুরু করে হামাস। তারা একের পর এক রকেট ছুড়তে থাকে। কিছু রকেট জেরুজালেম ও তেলআবিবের মতো দূরবর্তী শহরগুলোতেও পৌঁছাতে পেরেছে।

রোববার সকালেও তারা জেরুজালেম ও তেলআবিব পর্যন্ত একের পর এক রকেট নিক্ষেপ শুরু করে। সেই সঙ্গে ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা সমুদ্র, স্থল এবং আকাশপথে দক্ষিণ ইসরায়েলে প্রবেশ করে। তারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা ইসরায়েলি শহর ও সেনা ঘাঁটিগুলো ঘেরাও করে আক্রমণ করে এবং বহু মানুষকে হত্যা করে। সেই সঙ্গে তারা অজ্ঞাতসংখ্যক ইসরায়েলি বেসামরিক নাগরিক ও সৈন্যদের গাজায় জিম্মি করে রাখার জন্য আটক করে নিয়ে যায়। ভয়াবহ এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং মূলধারার গণমাধ্যমে সরাসরি প্রচারিত হয়েছে।

গাজা উপত্যকায় প্রায় ২৩ লাখ মানুষের বসবাস। পার্লামেন্ট নির্বাচনে বিজয়ের এক বছর পর ২০০৭ সালে হামাস গাজার নিয়ন্ত্রণ নেয়। এর পর ইসরায়েল ও মিসর গাজায় অবরুদ্ধ অবস্থা আরও জোরদার করে। তবে গাজায় বেকারত্ব প্রায় ৫০ শতাংশ।

২০২১ সালে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে বড় ধরনের সংঘাতের পর মিসর, কাতার ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় দু’পক্ষের পরোক্ষ আলোচনা হয়। তখন হাজারো গাজাবাসীকে ইসরায়েলে কাজ করার অনুমতি দেওয়ার ব্যাপারে সমঝোতা হয়। আরও কিছু কড়াকড়িও শিথিল করার সিদ্ধান্ত হয়।

তবে এখন বড় প্রশ্ন হলো– ইসরায়েলের দখলকৃত পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম কিংবা ওই অঞ্চলের অন্য এলাকায় বসবাসকারী ফিলিস্তিনিরা তাঁর আহ্বানে সাড়া দেবেন কিনা।

নিঃসন্দেহে ইসরায়েল একটি যুদ্ধের আশঙ্কা করছে এবং বিভিন্ন দিক থেকে এ যুদ্ধ শুরু হতে পারে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:০৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৯ অক্টোবর ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(238 বার পঠিত)
(204 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]