মঙ্গলবার ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বান্দার সঙ্গে আল্লাহর কথোপকথন

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   সোমবার, ০৯ অক্টোবর ২০২৩ | প্রিন্ট

বান্দার সঙ্গে আল্লাহর কথোপকথন

সূরা আল-ফাতিহা নামাজের প্রতি রাকাতে পাঠ করতে হয়, তা না হলে নামাজই হয় না। গুরুত্বের দিক দিয়ে সূরাটি অনন্য। পবিত্র কোরআনের ১১৪টি সূরার মধ্যে ১১২টি সূরার নামকরণ করা হয়েছে ওই সূরার কোনো একটি শব্দ দিয়ে। মাত্র দুটি সূরা এর ব্যতিক্রম। একটি হলো- ‘ইখলাস’ যে শব্দটি সূরার মধ্যে নেই, আর অন্যটি সূরা আল ফাতিহা। ‘ফাতিহা’ শব্দটি এই সূরার কোথাও নেই।

ফাতিহা শব্দের অর্থ খোলা, সূচনা কিংবা উদ্বোধন করা। এই সূরার মাধ্যমে বান্দা নামাজে তার রবের সঙ্গে সম্পর্কের সূচনা করেন। এই সূরার দ্বারা মহান আল্লাহর বিধি-বিধান, হুকুম-আহকাম, হালাল-হারামসহ যাবতীয় দিক-নির্দেশনার ভাণ্ডার কোরআন শুরু হয়েছে। আর এ কারণেই সূরাটির নামকরণ করা হয়েছে- সূরাতুল ফাতিহা। একই কারণে সূরাটি প্রথমে কোরআনের প্রথমে স্থান দেওয়া হয়েছে।

সূরা আল-ফাতিহা

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
উচ্চারণ: বিসমিল্লাহির রহমা-নির রহি-ম।
অর্থ: শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

الْحَمْدُ لِلَّهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ
উচ্চারণ: ‘আলহামদু লিল্লাহি রব্বিল আ -লামি-ন।
অর্থ: যাবতীয় প্রশংসা আল্লাহ তা’আলার যিনি সকল সৃষ্টি জগতের পালনকর্তা।

الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
উচ্চারণ: আররহমা-নির রাহি-ম।
অর্থ: যিনি নিতান্ত মেহেরবান ও দয়ালু।

مَالِكِ يَوْمِ الدِّينِ
উচ্চারণ : মা-লিকি ইয়াওমিদ্দি-ন।
অর্থ: বিচার দিনের একমাত্র অধিপতি।

إِيَّاكَ نَعْبُدُ وَإِيَّاكَ نَسْتَعِينُ
উচ্চারণ: ইয়্যা-কা না’বুদু ওয়া ইয়্যা-কা নাসতাই’-ন
অর্থ: আমরা একমাত্র তোমারই ইবাদত করি এবং শুধুমাত্র তোমারই সাহায্য প্রার্থনা করি।

اهْدِنَا الصِّرَاطَ الْمُسْتَقِيمَ
উচ্চারণ: ইহদিনাস সিরাতা’ল মুসতাকি’-ম
অর্থ: আমাদের সরল পথ দেখাও।

صِرَاطَ الَّذِينَ أَنْعَمْتَ عَلَيْهِمْ غَيْرِ الْمَغْضُوبِ عَلَيْهِمْ وَلَا الضَّالِّينَ
উচ্চারণ: সিরাতা’ল্লা যি-না আনআ’মতা আ’লাইহিম গা’ইরিল মাগ’দু’বি আ’লাইহিম ওয়ালা দ্দ-ল্লি-ন।
অর্থ: সে সমস্ত লোকের পথ, যাদেরকে তুমি নেয়ামত দান করেছ। তাদের পথ নয়, যাদের প্রতি তোমার গজব নাজিল হয়েছে এবং যারা পথভ্রষ্ট হয়েছে’।

সূরা আল-ফাতিহার নামসমূহ

সহিহ হাদিসে এ সূরাকে উম্মুল কোরআন ও উম্মুল কিতাব বা কোরআনের সার বলে অভিহিত করা হয়েছে। গুরুত্ব ও তাৎপর্যের দিক দিয়ে এ সূরাটির ত্রিশটিরও বেশি নাম রয়েছে। যেমন- ফাতিহাতুল কিতাব বা গ্রন্থের প্রারম্ভিকা, যে কথা অধিক গুরুত্ব রাখে, স্বভাবতই তা শীর্ষস্থান অধিকার করে থাকে। সাবউল মাসানি বা নিত্যপাঠ্য বাণীসপ্তক, সূরাতুল কাফিয়া বা সম্পূরক সূরা, সূরাতুল কানয বা অনন্য ধনভাণ্ডার, আসাসুল কোরআন বা কোরআনের ভিত্তি, সূরাতুল হামদ বা প্রশংসার সূরা, সূরাতুদ দোয়া বা প্রার্থনার সূরা, সূরাতুশ শোকর বা কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের সূরা, সূরাতুত তাওহিদ বা একত্ববাদ ঘোষণার সূরা, সূরাতুস সালাত বা নামাজের সূরা, সূরাতুশ শিফা বা আরগ্যের সূরা, সূরাতুন নুর, ওয়াফিয়া, রহমত, রুকাইয়া, হুদা, নিয়ামাহ ইত্যাদি।

বান্দার সঙ্গে আল্লাহর কথোপকথন

সাহাবি হজরত আবু হুরায়রা (রা.) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমরা সূরা ফাতিহা পড়। কোনো বান্দা যখন বলে, আলহামদুলিল্লাহি রাব্বিল আলামিন, তখন আল্লাহ বলেন, আমার বান্দা আমার প্রশংসা করেছে। যখন বলে, আর রাহমানির রাহিম, তখন আল্লাহ বলেন, আমার বান্দা আমার গুণ বর্ণনা করেছে। বান্দা যখন বলে, মালিকি ইয়াউমিদ্দীন। আল্লাহ বলেন, আমার বান্দা আমার মর্যাদা বর্ণনা করেছেন। বান্দা যখন বলে, ইয়্যাকানাবুদু ওয়া ইয়্যাকানাস্তাইন, আল্লাহ বলেন, এ হচ্ছে আমার ও আমার বান্দার মাঝের কথা। আমার বান্দার জন্য তাই রয়েছে, যা সে চায়। বান্দা যখন বলে, ইহদিনাস সিরাতাল মুস্তাকিম… (শেষ পর্যন্ত)। আল্লাহ বলেন, এসব হচ্ছে আমার বান্দার জন্য। আমার বান্দার জন্য তাই রয়েছে, যা সে চায়’। (সহিহ মুসলিম শরিফ: ৩৯৫)

সূরা আল-ফাতিহার বৈশিষ্ট্য

সূরা আল-ফাতিহা-ই সর্বপ্রথম কোরআনুল কারিমের একটি পূর্ণাঙ্গ সূরা হিসেবে রাসূলুল্লাহ (সা.) এর প্রতি নাজিল হয়েছে। সৰ্বপ্রথম ওহির মাধ্যমে মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি যে আয়াত বা সূরার অংশ নাজিল হয় তা হচ্ছে সূরা ‘আল-‘আলাক’ এর প্রাথমিক আয়াত কয়টি। (বুখারি: ৩)

সূরা আল-মুদ্দাসসির এর প্রাথমিক কতক আয়াত এর কিছুদিন পর নাজিল হয়। (বুখারি: ৪৯২২, ৪৯২৪) কিন্তু এই খণ্ড আয়াতসমূহ নাজিল হওয়ার মধ্যে একটিও পূর্ণাঙ্গ সূরা ছিল না। পূর্ণাঙ্গ সূরা প্রথম যা নাজিল হয়েছে, তা হচ্ছে সূরা আল-ফাতিহা।

উল্লেখ্য, আল্লাহ তাআলা সূরা আল-ফাতিহার মধ্য দিয়ে তার ঈমানদার বান্দাকে শিখিয়েছেন জীবনের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য কী হওয়া উচিত। শিখিয়েছেন করুণা চাওয়ার ক্ষেত্রে কোন বিষয়টি সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে।

ইয়া আল্লাহ! মসলিম উম্মাহকে সূরা আল-ফাতিহা পাঠের মাধ্যমে আপনার পরিপূর্ণ করুনা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৬:৫৫ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ০৯ অক্টোবর ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(146 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]