মঙ্গলবার ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যেকোনো মূল্যে নির্বাচন হবে, জনগণ স্বাধীনভাবে ভোট দেবে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩ | প্রিন্ট

যেকোনো মূল্যে নির্বাচন হবে, জনগণ স্বাধীনভাবে ভোট দেবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে যেকোনো মূল্যে যথাসময়ে আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে। জনগণও স্বাধীনভাবে ভোট দেবে। বিএনপি যেন কোনো অশুভ পদক্ষেপের মাধ্যমে নির্বাচন বানচাল করতে না পারে সেজন্য দেশবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে।

শনিবার রাজধানীর কাওলায় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে এসেছি। কাজেই ভোট দিলে আছি, না দিলে থাকবো না। কিন্তু দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবো। নৌকা মার্কায় ভোট দিন, যেন আবারও আপনাদের সেবা করতে পারি। কেননা শেখ মুজিবের মেয়ে দুর্নীতি নয়, মানুষের সেবা করতেই ক্ষমতায় এসেছে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি যে নির্বাচন করবে তাদের নেতা কে? প্রধানমন্ত্রী কে হবে? দুর্নীতিবাজ পলাতক আসামী নাকি এতিমের অর্থ আত্মসাৎকারী? বিএনপি নিজেরাই নির্বাচনে আসা নিয়ে সন্দিহান। এজন্য তাদের চেষ্টা নির্বাচন বানচাল করার। কারণ তারা জানে নির্বাচন হলেই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে। দেশের উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত হবে। তাই, তারা জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিতে চায়। কিন্তু তাদের সফল হতে দেওয়া যাবে না। এজন্য দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আজ ঢাকা বদলে গেছে, বাংলাদেশ বদলে গেছে। আগামীতে দেশকে সম্পূর্ণ বদলে দেব। জনগণের ভোগান্তি হয়, এমন কোনো কিছুই থাকবে না।

সরকার প্রধান বলেন, যানজট দূর করার জন্য এরই মধ্যে মেট্রোরেল চালু হয়েছে। এই মেট্রোরেল ধাপে ধাপে মতিঝিল হয়ে কমলাপুর রেলস্টেশন পর্যন্ত যাবে। মেট্রোরেলের সঙ্গে পাতাল রেল প্রকল্পের কাজও চালু হয়েছে। পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে, ঢাকায় সার্কুলার ওয়াটার ওয়েজ নির্মাণে পদক্ষেপ নিয়েছি। প্রথম এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে এরই মধ্যে চালু হয়েছে। আগামীতে পুরো ঢাকাকে ঘিরে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, বাংলাদেশ নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ করেছে। এর ফলে, আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। এখন পদ্মা নদীর উপর দিয়ে গাড়ি ও রেল দুটোই যাচ্ছে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল হচ্ছে, বেশ কয়েকটি সমুদ্র বন্দর করা হয়েছে। মহেশখালীতে ‘ডিপ সি’ পোর্ট হয়েছে।
আগামীতে যেসব জায়গায় রেল ক্রসিং রয়েছে সেগুলোতেও ওভারপাস করে দেবে সরকার, যেন রেলের জন্য আটকে থাকতে না হয়। সবার সুযোগ-সুবিধা দেখাই আমাদের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, জনগণের শক্তি বড় শক্তি। আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতেই বিশ্বাস করি। জনগণের ওপরই আমাদের আস্থা আছে। তাই তো পরিবারের সবাইকে হারিয়ে দেশে ফিরে এসেছি। বাংলাদেশের জনগণই আমার পরিবার-আপনজন। কাজেই তাদের জন্য কাজ করা আমার কর্তব্য। নৌকা মার্কা ক্ষমতায় থাকলেই সব হবে। আর লুটেরা, দুর্নীতিবাজ, খুনি, ডাকাত বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে সব উন্নয়ন থেমে যাবে, তারা দেশকে আগের মতো ধ্বংস করে দেবে। তাদের সেই সুযোগ আর দেওয়া যাবে না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, শাজাহান খান ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্পচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা আজম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম, যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলী আরাফাত প্রমুখ।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:২৭ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]