শুক্রবার ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নওয়াজের সঙ্গে জোটে যেতে যে শর্ত দিয়েছে পিপিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | প্রিন্ট

নওয়াজের সঙ্গে জোটে যেতে যে শর্ত দিয়েছে পিপিপি

পাকিস্তানে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও তিন দিনেও মেলেনি ভোটের ফলাফল। তবে পূর্ণ ফলাফল প্রকাশের আগেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার দাবি করেছেন নির্বাচনে ভোটের হিসেবে দ্বিতীয় স্থানে থাকা পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএলএন) চেয়ারম্যান নওয়াজ শরিফ। এরইমধ্যে সরকার গঠনের জন্য দৌড়ঝাঁপ শুরু করে দিয়েছেন তিনি। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে সঙ্গে নিয়ে জোট গঠনের তৎপরতাও শুরু করেছেন তিনি।

পিএমএলএন চাইছে, নতুন জোট গঠিত হলে সেই জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হবেন নওয়াজ শরিফ।

কিন্তু ভোটের হিসেবে তৃতীয় স্থানে থাকা পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) জানিয়েছে, নতুন জোটে যেতে তেমন কোনো সমস্যা না থাকলেও নওয়াজ শরিফকে পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মেনে নিতে আপত্তি রয়েছে দলটির।

শুক্রবার পিপিপির শীর্ষ মুখপাত্র খুরশিদ শাহ সংবাদমাধ্যম জিও নিউজকে বলেন, নওয়াজ শরিফ প্রধানমন্ত্রী হতে চান। এজন্যই জোট গঠনের তৎপরতা চালাচ্ছেন। জোট সরকারের অংশ হতে আমাদের আপত্তি নেই, কিন্তু আমরা তাকে (নওয়াজ) প্রধানমন্ত্রীর পদে দেখতে চাই না। আমরা চাই, পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন আমাদের দলের চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি।

পাকিস্তানের সাধারণ পরিষদের নির্বাচনের পূর্ণাঙ্গ ফলাফল এখনো প্রকাশিত হয়নি। তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বর্তমানে কারাগারে থাকা ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) এবং আরেক সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল-এনের মধ্যে।

জিও নিউজের সকালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অনানুষ্ঠানিক ফলাফলে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান-তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছেন। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাত ১১টা পর্যন্ত জাতীয় পরিষদের ২৬৬টির মধ্যে ২৫১টি আসনের বেসরকারি ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০১ আসনে জয় পেয়েছেন ইমরান খান সমর্থিত স্বতন্ত্ররা। আর নওয়াজের পিএমএল-এন জিতেছে ৭০টি আসনে এবং বিলাওয়াল ভুট্টোর পিপিপি পেয়েছে ৫১টি।

পাকিস্তানে সরকার গঠনের জন্য ২৬৬টি আসনের মধ্যে ১৩৪টিতে জয়লাভ করতে হয়। সেক্ষেত্রে কোনো দলই এককভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। যদিও কয়েকটি আসনের ফল ঘোষণা এখনো বাকি রয়েছে। তবে সেগুলোতে জয়ী হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না কোনো দল।

এদিকে, চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করার আগেই সাধারণ নির্বাচনে পাল্টাপাল্টি জয়ের দাবি করেছে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পিটিআই ও নওয়াজ শরিফের পিএমএলএন। পিটিআইয়ের দাবি, তাদের সমর্থিত প্রার্থীরাই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক আসনে জয়ী হয়েছেন। আর নওয়াজ শরিফ দাবি করছেন, একক বৃহত্তম দল হিসেবে জয়ী হয়েছে পিএমএলএন। এমন পরিস্থিতিতে কারা সরকার গঠন করবে সে ধোঁয়াশা এখনো কাটেনি।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৭:০৪ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(199 বার পঠিত)
(189 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]