মঙ্গলবার ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যে কারণে ইরানের ইসফাহান শহরকে লক্ষ্যবস্তু বানালো ইসরায়েল

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ | প্রিন্ট

যে কারণে ইরানের ইসফাহান শহরকে লক্ষ্যবস্তু বানালো ইসরায়েল

ব্যাপক হুমকি-ধামকির পর শেষ পর্যন্ত ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলার বদলা নিতে দেশটিতে পাল্টা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) স্থানীয় সময় ভোরে ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় ইসফাহান শহরে হামলা চালায় নেতানিয়াহু বাহিনী। এরপর থেকেই প্রশ্ন উঠেছে- কেন ইসফাহানকে লক্ষ্যবস্তু বানালো ইসরায়েল?

ইরানের কোন লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ করতে পারে নেতানিয়াহু বাহিনী?- এমন প্রশ্ন চর্চায় ছিল গেল কয়েকদিন ধরেই। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে উঠে আসে আকাশপথে পরমাণু স্থাপনা, পারমাণবিক গবেষণা কেন্দ্র, বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর ঘাঁটিসহ অবকাঠামো ও অবস্থানগুলো সম্ভাব্য ইসরায়েলি বিমান হামলার লক্ষ্য হতে পারে। এসব আশঙ্কা সত্যি করে, এমন স্থানে তেল আবিব হামলা চালিয়েছে যেখানে সত্যিই পরমাণু স্থাপনা রয়েছে।

ইসফাহান শহরটি ইরানের ঠিক কেন্দ্রে অবস্থিত। এটিকে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহর হিসেবে বিবেচনা করা হয়। রাজধানী তেহরানের দক্ষিণে প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত শহরটি পারমাণবিক স্থাপনা এবং সামরিক বিমানঘাঁটির আবাসস্থল। সামরিক গবেষণা ও উন্নয়নের স্থাপনা এবং সামরিক ঘাঁটিসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো রয়েছে।

এছাড়া ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কর্মসূচির কেন্দ্রস্থল নাতাঞ্জসহ ইসফাহানে বেশ কয়েকটি পারমাণবিক স্থাপনা অবস্থিত। এটি ইরানের সর্ববৃহৎ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কেন্দ্র। এছাড়া এখানে ক্ষেপণাস্ত্র উৎপাদনের বিশাল কমপ্লেক্সও রয়েছে বলে জানা যায়।

এর আগে, সিরিয়ার দামেস্কে ইরানি কনস্যুলেটে নেতানিয়াহু বাহিনীর হামলার প্রতিশোধে শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাতে ইসরায়েলি ভূখণ্ডে নজিরবিহীন হামলা চালায় ইরান। এরপরই তেহরানকেও মোক্ষম জবাব দিতে ছক কষতে থাকে তেল আবিব। আর হামলা চালালে এমন জবাব দেয়া হবে যাতে অনুশোচনায় ভুগতে হয় তেল আবিবকে- এমন সতর্কবার্তাও দেয় তেহরান।

যেকোনো আগ্রাসনের প্রতিশোধ হিসেবে ইসরায়েলকে ‘মাটির সঙ্গে মিশিয়ে’ দেয়া হবে বলেও হুমকি দেন ইরানের প্রেসিডেন্ট। বলেন, ইরানের সক্ষমতার পুরোটা দেখালে বিশ্ব মানচিত্র থেকে ‘উধাও’ হয়ে যাবে ইসরায়েল। তাই বাড়াবাড়ি না করতে দেয়া হয় একের পর এক হুঁশিয়ারি।

তেহরানের হুমকির পর ইসরায়েলের মিত্রসহ পশ্চিমারাও ইরানে হামলা চালাতে নিষেধ করে। তবে পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নেতানিয়াহু ইরানের ভূখন্ডে হামলা চালানোর নির্দেশ দেন। ইরানে ইসরায়েল ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে জানায় মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম এবিসি নিউজ। পরে তাদের বরাতে এ তথ্য জানায় সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা।

তবে এমন খবরের পর তেহরান বলছে, তারা বেশ কয়েকটি ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করেছে এবং দেশটিতে ‘এখনো কোনো ক্ষেপণাস্ত্র হামলা’ হয়নি।

এদিকে ইসরায়েলের এই হামলার পর বিশ্লেষকরা বলছেন, দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মকাণ্ডে কেবলই পরিস্থিতি ঘোলাটে হচ্ছে। চলমান পরিস্থিতিতে তেল আবিব-তেহরান যুদ্ধ বেঁধে যায় কিনা, তা-ই এখন শঙ্কার বিষয়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(239 বার পঠিত)
(204 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]