মঙ্গলবার ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজিজ-বেনজীরের বিরুদ্ধে কারা ব্যবস্থা নেবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   সোমবার, ২৭ মে ২০২৪ | প্রিন্ট

আজিজ-বেনজীরের বিরুদ্ধে কারা ব্যবস্থা নেবে

অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেছেন, অবসর নেয়ার পরও সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী ব্যবস্থা নেবে। একই সঙ্গে সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়ার কথাও উল্লেখ করেছেন তিনি।

রোববার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন ঋণখেলাপিদের ধরতে হবে। তখন সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, ঋণখেলাপিদের ধরতে পারবেন? তারা তো অনেক শক্তিশালী। তখন তিনি বলেন, সাবেক পুলিশপ্রধানের (বেনজীর আহমেদ) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তার কি ক্ষমতা কম ছিল? বেনজীর আহমেদের বিরুদ্ধে আদালত যে ব্যবস্থা নিচ্ছেন, তাতে সরকারের সমর্থন আছে বলেও জানান তিনি।

কিন্তু বাহিনী দুটি তাদের সাবেক প্রধানদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে কি না- এ প্রশ্নে নানা আলোচনা চলছে। জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদ সেনাবাহিনীর শীর্ষ পদে ছিলেন। ফলে বাহিনী নিজে থেকে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারে না বলে মনে করেন সাবেক তিনজন ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা। পুলিশেও সাবেক প্রধানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় বা নিজেদের ব্যবস্থা নেয়ার কোনো সুযোগ নেই বলে পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন।

দুর্নীতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে গত ২০ মে বাংলাদেশের সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে আজিজ আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্য ঘোষণার কথা জানানো হয়েছে।

সেনাবাহিনী কি ব্যবস্থা নিতে পারে?
সেনাবাহিনীর সাবেক চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মইনুল ইসলাম বলেন, সেনাবাহিনী নিজে থেকে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারে না। কারণ, জেনারেল আজিজ আহমেদ সেনাবাহিনীর শীর্ষ পদে ছিলেন, তার অধীন ছিল বাহিনী। ফলে তার বিরুদ্ধে বাহিনী ব্যবস্থা নিতে পারে না। সাবেক এই সেনাপ্রধানের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নিতে পারে।

সেনাবাহিনীর আরো দুজন অবসরপ্রাপ্ত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেয়ার উদ্যোগ নিলে তখন সেনাবাহিনী সহায়তা করতে পারবে।

পুলিশেও অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থা নেয়া যায় না
অতিরিক্ত আইজিপি পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা বলেন, বেনজীর আহমেদ এখন পুলিশের কোনো কর্মকর্তা নন। যদি তিনি পুলিশের চাকরিতে থাকতেন, তবে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুযোগ ছিল। এখন তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নিতে হবে। আর যেখানে ফৌজদারি আইন প্রয়োগ করা হচ্ছে, সেখানে পুলিশের অভ্যন্তরীণ কোনো পদক্ষেপ নেয়ার প্রয়োজন নেই।

সাবেক আইজিপি মোহাম্মদ নুরুল হুদা বলেন, বেনজীর আহমেদ তো চাকরিতে নেই। চাকরিতে থাকলে তিনি শৃঙ্খলাবিধির আওতায় থাকেন। যিনি চাকরিতে থাকেন না, তার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাবিধিতে ব্যবস্থা নেয়া যায় না। এখন যেখানে ফৌজদারি আইনের বরখেলাপ হয়েছে, সেখানে ফৌজদারি আইনের প্রয়োগ করার সুযোগ আছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:২১ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]