শুক্রবার ২৬শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে পুড়ে যাওয়া আল-আমীন টিম্বার হাউজ পরিদর্শনে এ. কে. আজাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ | প্রিন্ট

ফরিদপুরে পুড়ে যাওয়া আল-আমীন টিম্বার হাউজ পরিদর্শনে এ. কে. আজাদ

ফরিদপুর সদরের কৈজুরি ইউনিয়নের মঙ্গলকোট বাজারে পুড়ে যাওয়া আল-আ মীন টিম্বার হাউজ পরিদর্শন করেছেন ফরিদপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য এ. কে. আজাদ। রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং প্রতিষ্ঠানের প্রোপাইটর শাহ মো. আক্কস প্রামাণিককে আর্থিক সহায়তা দেন।

এর আগে, সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২৭টি ছোট মেশিন, ৮টি বড় মেশিন, তৈরি ফার্নিচার, কাঠ, ঘরসহ প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষতি হয় বলে দাবি করে দোকান মালিক।

আক্কাছ প্রামাণিক বলেন, সোমবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটায় আগুনের খবর পাই। ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা রাত সাড়ে তিনটা ঘটনাস্থলে আসে। এর আগে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। পরে ফায়ার সার্ভিস প্রায় আধাঘণ্টার চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে সব পুড়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার টিম্বার হাউজে একটি কাঠ চিরাই স’মিল, ফার্নিচার ডিজাইন কারখানা ও শো-রুম রয়েছে। আমার ডিজাইন কারখানা ও তৈরিকৃত সকল কিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে আমার প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

আক্কাছ প্রামাণিক বলেন, সোমবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটায় আগুনের খবর পাই। ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা রাত সাড়ে তিনটা ঘটনাস্থলে আসে। এর আগে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। পরে ফায়ার সার্ভিস প্রায় আধাঘণ্টার চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে সব পুড়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার টিম্বার হাউজে একটি কাঠ চিরাই স’মিল, ফার্নিচার ডিজাইন কারখানা ও শো-রুম রয়েছে। আমার ডিজাইন কারখানা ও তৈরিকৃত সকল কিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে আমার প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

আক্কাছ প্রামাণিক বলেন, সোমবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটায় আগুনের খবর পাই। ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা রাত সাড়ে তিনটা ঘটনাস্থলে আসে। এর আগে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। পরে ফায়ার সার্ভিস প্রায় আধাঘণ্টার চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে সব পুড়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার টিম্বার হাউজে একটি কাঠ চিরাই স’মিল, ফার্নিচার ডিজাইন কারখানা ও শো-রুম রয়েছে। আমার ডিজাইন কারখানা ও তৈরিকৃত সকল কিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে আমার প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

 

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৩:৫৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]