• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    খোকাকে নিয়ে যা বললেন রাজনৈতিক দলের নেতারা

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৮ নভেম্বর ২০১৯ | ৯:৩৩ পূর্বাহ্ণ

    খোকাকে নিয়ে যা বললেন রাজনৈতিক দলের নেতারা

    দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকাকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তাদের অনেকে এই মুক্তিযোদ্ধার রাজনৈতিক জীবনের বিভিন্ন সফলতার কথাও তুলে ধরেছেন। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর যথাসময়ে খোকাকে বাংলাদেশি পাসপোর্ট না দেওয়ায় জন্য সরকারের সমালোচনা করেছেন।


    সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় খোকার জানাজায় অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘খোকা বিনয়ী ও মার্জিত আচরণের ব্যক্তি ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে ছিল তার অসামান্য অবদান। আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকলেও ব্যক্তিজীবনে তিনি চমৎকার মানুষ ছিলেন। ব্যক্তিজীবনে আমাদের প্রত্যেকের মধ্যেই ত্রুটি রয়েছে। সাদেক হোসেন খোকা মানুষ হিসেবে ছিলেন অমায়িক ও ভদ্র।’


    একই জায়গায় জানাজায় অংশ নিয়ে বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, ‘খোকা ব্যক্তিগত জীবনে একজন সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন। একজন মন্ত্রী ও মেয়র হিসেবে ঢাকার জন্য অনেক কিছু তিনি করেছেন। দেশের জনগণ তাকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।’

    বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে (ডিএসসিসি) খোকার মরদেহ নেওয়া হয়। এ সময় খোকার স্মৃতিচারণ করে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘একজন মেয়র হিসেবে নগরবাসীর সেবা করে গেছেন অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা। নিষ্ঠার সঙ্গে তিনি দল মত নির্বিশেষে মানুষের জন্য সেবা করে গেছেন, এটাই ছিল তার আদর্শ।’

    বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে নগর ভবনে অবিভক্ত ঢাকার শেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকার নামাজে জানাজার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

    সাঈদ খোকন বলেন, ‘অবিভক্ত ঢাকার শেষ নির্বাচিত মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা আমাদের মাঝে নেই। তার মৃত্যুতে ঢাকাসহ সারা দেশবাসী শোক প্রকাশ করছে। তিনি তার জীবদ্দশায় এ সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে নগরবাসীর সেবা করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে মুক্তিসংগ্রামে তিনি অসামান্য ভূমিকা রেখে গেছেন। আমরা মহান রাব্বুল আল আমিনের কাছে দোয়া করি যেন তার ভুল ত্রুটি ক্ষমা করে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করেন। আমিন।’

    দুপুর ১২টায় খোকার মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে সর্বস্তরের মানুষ খোকার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। এই সময় খোকার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘বিভিন্ন আন্দোলনে ঢাকার রাজপথে খোকার সহযোদ্ধা ছিলাম। এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় পুলিশের উদ্দেশে বুক পেতে দিয়ে খোকা বলেছিলেন, গুলি করো, আমার এখানে গুলি করো। তার জোরালো কণ্ঠের ফলে পুলিশ তখন ভয় পেয়ে গিয়েছিল। বাবরি মসজিদ ভাঙার পর পুরান ঢাকায় হিন্দুদের বাড়িঘর, মন্দির রক্ষাতেও তিনি ভূমিকা রেখেছিলেন।’

    গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘যে দেশের জন্য তিনি মুক্তিযুদ্ধ করেছেন, তার পাসপোর্টের জন্য তাকে দূতাবাসে ধরনা দিতে হয়েছে। সেটা কি প্রমাণ করে না, আমরা কি সম্মান তাকে দিয়েছি? সাদেক হোসেন খোকার শেষ ইচ্ছা ছিল, যে দেশ তিনি স্বাধীন করেছেন, সে দেশের আলো-বাতাস, পশু-পাখির সুন্দরের মধ্যে তার শেষ নিঃশ্বাস নেবেন। তাকে বিদেশি নাগরিকের মতো ট্রাভেল ভিসায় দেশে আনা হয়েছে, এটা তো আমাদেরই আক্ষেপ হওয়া উচিত।’

    খোকার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, ‘খোকা খুব ভালো মানুষ ছিলেন। যথাযোগ্য সম্মান তিনি পেয়েছেন। আমি কবে মারা যাবো, গেলে জানাজা হবে কিনা আদৌ জানি না। এখন দেশে ভোট হয় না। যখন ভোট হয়েছিল তখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী খোকার কাছে হেরেছিলেন।’

    কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর, চিত্রনায়ক উজ্জ্বল প্রমুখ।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4344