• শিরোনাম



    UTTARA UNITED COLLEGE

    #UUC_2020

    Posted by Uttara United College on Friday, 29 May 2020

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    গোপালগঞ্জের সন্তান ও করোনা যোদ্ধা ডা. তুষারের আবেগঘন স্ট্যাটাস

    শেখ সোহেল রানা | ০৯ মে ২০২০ | ৫:০৬ অপরাহ্ণ

    গোপালগঞ্জের সন্তান ও করোনা যোদ্ধা ডা. তুষারের আবেগঘন স্ট্যাটাস

    ডা: তুষার দেশের একজন প্রথিতযশা মেধাবী ডাক্তার। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে করোনা আক্রান্ত রোগীদের অনাবরত চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিসিইউতে কর্তব্যরত এই চিকিৎসক।


    ডা: তুষার গোপালগঞ্জের চন্দ্রদিঘলীয়ার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, দানবীর ও আদর্শ শিক্ষক মরহুম আ: ছালাম বিশ্বাস ও রত্নগর্ভা মাতা মরহুমা মমতাজ জাহানের কনিষ্ঠ সন্তান এবং বিশিষ্ট মিডিয়া টকশো-ব্যক্তিত্ব , সাংবাদিক নেতা, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব আলহাজ্ব শাবান মাহমুদের কনিষ্ঠ সহোদর।


    ডা. তুষার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো;

    “আমি যখন কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে কাজ করেছি তখন একটা কথা সবসময় মনে রাখতাম যে আমি আল্লাহর পরিকল্পনার একটা অংশ, আল্লাহই আমাকে এখানে পাঠিয়েছেন এবং আমার ঈমানের পরীক্ষা নিচ্ছেন। এই ঈমানের পরীক্ষায় আমি তখনই উত্তীর্ণ হতে পারব যখন আমি করোনাকে ভয় না পেয়ে আল্লাহকে ভয় পাব।

    আমি জানতাম যে আমি এই যুদ্ধে কতটা নির্ভীক থাকব সেটা নির্ভর করবে আমার ঈমানের গভীরতার উপর। মনের মধ্যে যদি এই বিশ্বাস ঢুকাতে পারি যে যিনি আমাকে এই যুদ্ধে পাঠিয়েছেন তিনিই আমার হেফাজত করবেন তাহলে আমার দুশ্চিন্তা অনেকটাই কমে যাবে।

    আমি নিজের সুরক্ষার ব্যাপারে শতভাগ সতর্কতা অবলম্বন করেছি এবং আল্লাহর উপর পুরোপুরি বিশ্বাস রেখেছি। আমার এই দুইটি কাজ আমাকে অনেকটাই নির্ভীক রেখেছিল।

    কোভিড ইউনিটে প্রথম যে অপারেশন হয় সেখানে আমিই এনেস্থিসিয়া দিয়েছিলাম। এনেস্থিসিয়া দেয়ার সময় আমার এটাই মনে হয়েছে যে আমি এমন একজনের পাশে দাড়িয়ে আছি যার পাশথেকে তার চিরিচেনা স্বজনরা সরে গিয়েছে।

    রোযা রেখে মহামারী আক্রান্ত মানুষকে সেবা করার সুযোগ আল্লাহ সবাইকে দেন না। আমাকে এই সুযোগ দেয়ার জন্য আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করতাম এবং যতক্ষন হাসপাতালে থাকতাম ধরে নিতাম আমি সর্বোত্তম জায়গাতে আছি। আমি ভাবতাম হয়তো এই জায়গাতে থাকার জন্যই আমি সারাজীবন অন্যদের সাথে প্রতিযোগিতা করেছি।

    আমি জানি এই মহামারী একদিন থাকবে না ইনশাআল্লাহ। সেদিন যেন আমার করোনাকালের ভূমিকায় আমি গর্বিত হতে পারি; আমাকে যেন লজ্জিত হতে না হয় এই ব্যাপারটা আমি মাথায় রাখার চেস্টা করেছি।

    আমাকে কেউ বীর বলবেন না অথবা প্রশংসা করবেন না।আমি যে কাজ করে এসেছি তার প্রতিদান একমাত্র আল্লাহর কাছ থেকে নিতে চাই।”জীবন কি কাজে ব্যয় করেছ?” এই প্রশ্নের উত্তরে যখন ভালো কিছু খুঁজে পাব না তখন যেন এই দিনগুলোর কথা বলতে পারি।

    আজকে থেকে চৌদ্দদিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবো ইনশাআল্লাহ। নিজের সামনে দাঁড়াতে হবে এই কয়দিন, দাঁড়াতে হবে বিবেকের সামনে। আয়নার ওপাশে নিশ্চয়ই একজন গর্বিত মানুষকে দেখতে পাব। এমন একজন মানুষকে দেখতে পাব যে যাকে দেখলে মুক্তিযোদ্ধাদের কথা স্মরণ হয়।”

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4344